ক্লাসের মধ্যে ছাত্রছাত্রী ডিপ লিপ কিসে মত্ত হাওড়ার নামী স্কুলে। সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়ল অশালীন কীর্তি…

0
22508

ক্লাসে সহপাঠীকে চুম্বন করার শাস্তি হিসাবে অভিযুক্ত ছাত্রছাত্রীকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নিলেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। এই ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার শিবপুর এলাকায়। ওই স্কুলটি একটি কো-এডুকেশন স্কুল। এই ঘটনা ধরা পড়েছে সি.সি.টি.ভি ফুটেজে। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির আলচনায় স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয় ওই ছাত্র ছাত্রীকে। ক্লাসের মধ্যে চুম্বনের এমন কান্ড ঘটে যাওয়ায় খুব অপ্রস্তুতে পড়েছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ।

এই ঘটনার চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ায় স্কুলের নাম খারাপ হয়। জানা গেছে যে গত মাসে এই ঘটনা ঘটেছে। তারা নবম শ্রেনি ছাত্র ছাত্রী। তারা যখন স্কুলে ভর্তি হয় তখনই তাদের বলে দেওয়া হয়েছিল যে এটা কো এডুকেশন স্কুল, এখানে কিছু নিয়ম কানুন আছে।

রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের সিলেবাস অনুযায়ী পঠনপাঠন হওয়া ওই স্কুলের ক্লাস চলাকালীন ক্লাসের মধ্যে এই ছাত্রছাত্রীর চুমু খাওয়ার ঘটনায় তাদের স্কুল থেকে বের করে দেয় শিবপুরের ওই স্কুল। শুধু তাই নয় তাদের বাবা-মাকে ডেকে তাদের সব কান্ড কারখানার ভিডিও দেখানো হয়। সব দেখিয়ে তাদের স্কুল থেকে বার করে দেওয়া হয়েছিল।

এমনকি তাদের ট্র্যান্সফার সার্টিফিকেট দিয়ে দেওয়া হয়। তারা আর কোন স্কুলে ভর্তি হতে পারবে কিনা তার কোন ঠিক নেই। তাদের সন্তান্দের নিয়ে খুব চিন্তিত তাদের বাবা মায়েরা। তাদের কিছু করার ছিলনা কারন স্কুলের কমিটির সদস্যরা ভোট দিয়েছিলেন এই ঘটনার সপক্ষে এবং বিপক্ষে।

সেই ভোট বেশিরভাগ পড়ে তাদের বিপক্ষে। তাই আর কোন উপায় থাকেনা তাদের কাছে। তবুও তাদের অভিভাবকের অনুরোধে আরও একবার ভেবে দেখার সিদ্ধান্ত নেয় স্কুল। কিন্তু কোন ইতিবাচক কথা শোনা যায়নি। এরকম ঘটনা প্রায় শোনা যায়না বললেই চলে।

এখনকার ছেলেমেয়েরা অনেক কম বয়সেই বেশি বয়সের মানুষের মতো কাজ করে। তারা ভালো শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার জায়গায় খারাপ জিনিস আগে শেখে। তাই আজ এত অনাচার। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের সকলে বদনাম হয় এই ধরনের কিছু অকালপক্ক ছেলেমেয়ের জন্য।

তাদের সঠিক পথে চালনা করা উচিৎ। আর সেই দায়িত্ব নিতে হবে বর্তমান প্রজন্মকেই। তারা যদি উদ্যোগ না নেয় তাহলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম একদম রসাতলে চলে যাবে। তাই সবাইকে দায়িত্ব নিয়ে এই কাজে সামিল হতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here