“69” পজিশনে গার্লফ্রেন্ডের সাথে সঙ্গম করতে গিয়ে দম বন্ধ হয়ে প্রান হারালেন যুবক…

1
94831

আমাদের প্রত্যেকেরই বন্ধুদের মধ্যে এমন কিছু বন্ধু থাকে যারা খুব ইয়ার্কি করে। কোন কিছু নিয়ে তাদের ইয়ার্কি করা বন্ধ থাকেনা। এমনকি সে তার প্রথম সঙ্গমের সময় কি করবে তা নিয়েও ইয়ার্কি করে থাকে। কেউ বলে সে ঠিকমত করতে পারবেনা আবার কেউ বলে করতে গিয়ে মারা যাবে। এই মজার ছলে করা ইয়ার্কি গুলো সত্যি হয়ে যাবে বোঝা যায়নি।

আদৃতা খান এবং হাসান সরকার নামের এক প্রেম যুগলের সাথে বাস্তবেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। তাদের সাথে সঙ্গমকালে একটি দূর্ঘটনা ঘটে গেছে। তাদের প্রেম শুরু হয় অনেক ছোটবেলা থেকে। স্কুলজীবনে তাদের চার বছর প্রেম চলার পর দুজনেই কলেজে ভর্তি হয়।

বয়সের সাথে সাথেই স্বাভাবিক ভাবেই বৃদ্ধি পেতে থাকে তাদের যৌ-নাকাঙ্ক্ষা। তাই তারা যৌ-নতার স্বাদ পেতে চায়। সেই চাওয়া পূরন করতে লিপ্ত হয় যৌ-ন কর্মে। তারা নতুন কিছু করার চেষ্টা করে। কিছুদিন আগেই তারা সিদ্ধান্ত নেয় প্রথমবারের মতো সঙ্গম করার জন্য।

আর সেই জন্য তারা একটি হোটেল রুমও ভাড়া নেয়। তারা নীল ছবির ভিডিও অনুযায়ী নিজেদের প্রস্তুত করে। সেই মতোই শুরু হয় তাদের সঙ্গম। ভিডিও দেখে তাদের সেই ভিডিওর একটি পজিশন খুব পছন্দ হয়। সেই পজিশন হল ’69’।

এই পজিশনের ব্যাপারে বিশদে বলার প্রয়োজন নিশ্চয়ই নেই। আপনারা সকলেই জানেন এই পজিশনের ব্যাপারে। কিন্তু একটি ব্যাপারে ছেলেটি একদমই গুরুত্ব দেয়নি সেটি হল মেয়েটির ওজন। প্রেমিকার ওজন সহ্য করতে না পেরে দম বন্ধ হয়ে যায় প্রেমিকের।

আর সেটা টের পায়নি আদৃতা। হাসান যখন থেমে যায় তখন সে ফিরে দেখে তাকে। আদৃতা ভাবে যে হাসান হয়তো ঘুমিয়ে পড়েছে। সে ভেবে সে রেগেও যায়। কিছুক্ষন পড়ে সে যখন বুঝতে পারে হাসান মারা গেছে। তখন বুঝতে পেরে দুঃখে কষ্টে ভেঙ্গে পড়ে আদৃতা।

নিজেকে ক্ষমা করতে পারেনা। যদিও তার এই অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য তাকে শাস্তি পেতে হয়। মেয়েটি নিজেকে কখনো এই কাজের জন্য ক্ষমা করতে পারবে না বলে জানিয়েছে। নির্দিষ্ট কিছু দিনের জন্য শাস্তি পেলেও সারাজীবন নিজেকে শাস্তি দিয়ে যাবে সে।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here