২১ বছর পর টাইটানিক সিনেমার নায়ক-নায়িকাকে আবার দেখা গেলো রোমান্স করতে…

0
8790

টাইটানিক ১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি ডিজাস্টার রোমান্টিক চলচ্চিত্র। এই সিনেমার পরিচালক, লেখক ও সহ-প্রযোজক হলেন জেমস ক্যামেরন। মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন লিওনার্ডো ডিক্যাপ্রিও ও কেট উইন্সলেট। টাইটানিক জাহাজের যাত্রাপথে উচ্চবিত্ত সমাজের মেয়ে রোজের সাথে নিম্নবিত্ত সমাজের প্রতিভূ জ্যাকের প্রেম হয়। ১৯১২ সালের বাস্তব টাইটানিকের ট্র্যাজেডিই এই চলচ্চিত্রে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

প্রেমের গল্প আর প্রধান চরিত্রগুলো কাল্পনিক হলেও অনেক পার্শ্ব চরিত্র ঐতিহাসিক সত্যের ভিত্তিতে তৈরি করা হয়েছিল। টাইটানিক চলচ্চিত্রের মুক্তির ২১ বছর হয়ে গেছে। সহ-তারকা কেট উইন্সলেট এবং লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিওকে কিছুদিন আগে সেন্ট ট্রোপজের একটি পুলের ধারে একসঙ্গে দেখা যায়।

কেট এবং লিওনার্দো তাদের রসায়নের জন্য বিশ্বব্যাপী খ্যাত। মনে হচ্ছে মুক্তির ২১ বছর পরও দুজনে তাদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রেখেছেন। টাইটানিকের জ্যাক এবং রোজ একসঙ্গে মিলিত হলে তা রোমান্টিক হবে অবশ্যই।

কেট নিছক বিকিনিতে ও ডি-ক্যাপ্রিও টপলেস ছিল। তারা তাদের ব্যস্ত সময়সূচির বাইরে কিছু সময় নিয়েছেন এবং একে অপরের সাথে লিওর বিলাসবহুল ফরাসি এস্টেটে পুলের ধারে সময় অতিবাহিত করছেন।

কেট সাদা ট্রান্সপারেন্ট পোষাকের ভিতরে ফ্লুরোসেন্ট কমলা রঙের বিকিনি পড়েছিলেন। কোন সন্দেহ নেই তার সৌন্দর্য দারুন লাগছিল।

কেট তিন সন্তানের মা, তিনি একটি সোনার হার পরেছিলেন এবং কালো সানগ্লাসের সাথে তার চেহারা অপূর্ব লাগছিল। অভিনেত্রী তার চুল পনি করে বেঁধেছিলেন এবং মুখের উপর কোন মেকআপ ছাড়াই বেরিয়ে আসেন।

লিও কিছুদিন আগে তার মডেল বান্ধবী নিনা আগদালের সাথে ব্রেক আপ করেছেন। তিনি তার নিখুঁত শরীর প্রদর্শন করেছেন কোন পোশাক না পরে। পাশাপাশি কেটকে চমৎকার উজ্জ্বল দেখাচ্ছে।

পোশাক ভেজা অবস্থায় তারা দুজনে লিওর ভিলায় একে অপরের সাথে কথাবার্তা বলছিলেন। ঘরে ঢোকার সময় তাদের হাত একে অপরের সাথে স্নেহের সাথে আবৃত ছিল। তারা লিওর বার্ষিক ভিত্তি উদযাপনের উদ্দেশ্য একে অপরের সঙ্গে দেখা করেন সেন্ট ট্রোপজে।

১৯৯৮ সালে জেমস ক্যামেরনের টাইটানিক ১১ টি একাডেমী অ্যাওয়ার্ডস অর্জন করে। চলচ্চিত্রটি বিশ্বব্যাপী ২ বিলিয়ন ডলার কামাই করে। এটিই ইতিহাসের প্রথম চলচ্চিত্র যা এত বেশী অর্থ উপার্জন করেছিলো। জেমসের আরেকটি চলচ্চিত্র অবতার-২ বিলিয়নের মাইল অতিক্রম করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here