ঘুমানোর আগে করুন এই কাজটি, তাহলেই থাকবেন স্লিম অ্যান্ড ট্রিম, হাতেনাতে ফল পাবেন…

0
34803

রোগা ছিপছিপে শরীর কে না চায়। বর্তমান ভ্যাজালের যুগে সবার শরীর খুব একটা ভালো অবস্থায় নেই। তার প্রথম লক্ষণ হল শরীরের ওজন বৃদ্ধি। অনেককেই বাধ্য হয়ে বাড়িতে রান্না খাবারের বদলে বাইরের তৈরি ফাস্ট ফুড খেতে হয়। আর সেই কারনেই মেদ বাড়তে থাকে শরীরে। কিন্তু শুধু কিছু নিয়ম মেনে চললেই এই মেদ খুব সহজেই কমানো যায়। সহজেই পেতে পারেন সুন্দর মেদহীন শরীর।

কিন্তু যেকোন নিয়মের মধ্যে চলতে গেলে লাগে সময়। আর এখন এই সময়ের বড়ই অভাব আমাদের জীবনে। সারাদিন অফিসের চাপে থাকা, তারপর ক্লান্ত হয়ে বাড়ি ফেরা। নিজের জন্য আর আলাদা করে সময় বের করা প্রায় অসম্ভব হয়ে ওঠে। এইসব কারনে ওজন বেড়েই চলেছে। কিছু করতে না পেরে বিরক্ত হচ্ছেন সকলেই।

কেউ কেউ এই চিন্তায় ডিপ্রেশনে ভুগছেন। কিন্তু এত চিন্তা করার মতো কিছু নেই। বাড়িতেই মেনে চলুন কিছু সহজ নিয়ম, তাহলেই আপনার ওজন একদম নিয়ন্ত্রনে থাকবে। তাহলে আসুন জেনে নিন কি কি করতে হবে আপনাকে…

১। গোলমরিচ ঃ- ওজন কমাতে সাহায্য করে গোলমরিচ। তাই চেষ্টা করুন রাতের খাবারে গোলমরিচ ব্যবহার করার। গোলমরিচে আছে এমন কিছু উপাদান যা শরীরের পক্ষে খুব উপকারী। শরীরের মেদ ঝরাতে সাহায্য করে সেটি।

২। অ্যালোভেরা ঃ- ওজন কমাতে সাহায্য করে অ্যালোভেরার জুস। ঘুমনোর আগে অ্যালোভেরার জুস খেলে খাবার ঠিক মতো হজম হয় আর তার সঙ্গে মেদ কমাতে সাহায্য করে। অ্যালোভেরা খুব উপকারী একটি ভেষজ। এটি ওজন কমানোর সাথে সাথে ত্বক, চুল এবং শরীরের জন্য খুব উপকারী।

৩। দুধ ও দই ঃ- ঘুমনোর আগে দুধ বা দই যেকোন একটা খেলে ওজন কিছুটা হলেও কমে। তার সঙ্গে দই ও দুধে থাকা প্রোটিন শরীরের পক্ষে উপকারী। বিশেষ করে দই শরীরের টক্সিন বের করে দিয়ে শরীরকে সুস্থ এবং তাজা রাখে।

৪। হাঁটা ঃ- অনেকে আছেন ডিনার করার পরেই সঙ্গে সঙ্গে বিছানায় যান। কিন্তু এই অভ্যাস মোটেই ভালো নয়। এরকম করলে খবার হজম হয় না। সকলের উচিৎ ঘুমানোর অন্তত দুঘন্টা পড়ে শোয়া। আরো ভালো হয় যদি খাবার পর রাস্তায় একটু হেঁটে নেওয়া যায়। এর ফলে খাবার হজম হয় সহজে আর ওজন থাকে নিয়ন্ত্রনে।

সামান্য এই চারটি উপায় ব্যবহার করলেই আপনি আপনার ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখতে পারবেন। সুস্থ থাকবে আপনার শরীর সাথে মন থাকবে তাজা। ভবিষ্যতের কথা ভেবে দেরই না করে আজ থেকেই শুরু করে দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here