রাজের প্রথম সংসার ভাঙার কারন ছিলো শুভশ্রী। সামনে এলো নতুন কাহিনী…

0
30154

প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের সাত বছর পর সব অতীত ভুলে আবার দ্বিতীয়বার বিয়ে করেছেন রাজ চক্রবর্তী। দীর্ঘ দিনের মেলামেশার পর রাজ ও শুভশ্রী বিয়ে করেন। তাদের বিয়ে হয় বর্ধমানের বাওয়ালী রাজবাড়িতে। রাজ পরিচালক ও শুভশ্রী হলেন অভিনেত্রী, সেই সূত্রে তারা সহকর্মী। তারা বিয়ে করে বেশ সুখেই সংসার করছেন। কিন্তু রাজকে ভুলতে পারছেন না তার প্রথম স্ত্রী।

রাজের প্রথম স্ত্রীর নাম হল শতাব্দী। টলিউডের দুই বিখ্যাত ব্যাক্তির বিয়ে নিয়ে যখন মেতেছিল গোটা বিশ্ব তখন শতাব্দী স্মৃতিচারণ করছিল তার আর রাজের সংসার জীবনের। তিনি তাদের ঘনিষ্ঠ মহলে মুখ খুললেন। আর বললেন তিনি চান রাজ আর শুভশ্রী সুখে থাকুক। তাদের দাম্পত্য জীবন খুব সুখের হোক।

২০০০ সালের একটি টেলিভিশনের অনুষ্ঠানে পরিচয় হয় তাদের। পরিচয় থেকে বন্ধুত্ব, বন্ধুত্ব থেকে প্রেম। তারা খুব অল্প সময়ের মধ্যেই কাছে চলে এসেছিল। তখন রাজ টলিউডে প্রতিষ্ঠা পায়নি, কাজের খোজ করছিলো। রাজ রুদ্রনীল ঘোষের সঙ্গে টালিগঞ্জের একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতো।

সেই সময় শতাব্দী তাকে অনেক সাহায্য করেছে। তাকে টাকা পয়সা দেওয়া থেকে শুরু করে খাবার দেওয়া, এমনকি অসুস্থ হলে তাকে সেবাও করেছে শতাব্দী। এই কথা বলেছে শতাব্দীর খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা। শতাব্দীর আর এক বান্ধবী বলেছে শতাব্দী নিজের বাড়ি থেকে খাবার চুরি করে খাওয়াত রাজকে।

কখনও মর্নিং ওয়াকের নাম করে রাজকে ব্রেকফাস্টের টাকা দিয়ে আসত। জলের বোতল জামাকাপড় সব কিছু তাকে কিনে দিত শতাব্দী। তার কিছু বছর পর ২০০৬ সালে বিয়ে হয় রাজ ও শতাব্দীর। তখন রাজ নিজের কেরিয়ারের দিক থেকে প্রতিষ্ঠিত হয়নি।

তাই তখন শতাব্দীর অবিভাবকেরা মেনে নেয়নি রাজকে। কিন্তু তাদের মেয়ের কথা মাথায় রেখে তারা মেনে নেয় তাকে। শতাব্দী খুব লাকি ছিল রাজের জন্য। তার সঙ্গে বিয়ের পরেই রাজ ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’, ‘চ্যালেঞ্জ’, ‘প্রেম আমার’ এর মত হিট সিনেমা তৈরী করে।

একটু নাম হওয়ার পরেই রাজ এর মন ঘুরে যেতে থাকে। তখন থেকেই রাজ শুভশ্রীর সঙ্গে মেলামেশা শুরু করে আর খারাপ ব্যবহার শুরু করে শতাব্দীর সঙ্গে। শতাব্দী তা জানতে পেরে ফোন করে শুভশ্রীর বাড়িতে।

তার পরিবারের লোক বলে শুভশ্রীর বয়স এখন কম তাই ভুল করে ফেলেছে আর এই ভুল হবেনা। তারপর গুজব রটেছিল শুভশ্রী নাকি প্রেম করছে দেব এর সঙ্গে। কিন্তু পড়ে শতাব্দী জানতে পারে সেসব মিথ্যে ছিল।

এসব কিছু আর সহ্য করে রাজের সঙ্গে থাকতে না পেরে বাধ্য হয়ে ছেড়ে যায় শতাব্দী। কিন্তু সে আজও চায় রাজ যার সাথেই থাকুক সে যেন ভালো থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here