ভারতের এই মন্দিরের কথা শুনেছেন ? এখানে ট্রেনের গতি নিজে নিজেই কমে যায়…

0
6441

ধর্ম বিশ্বাস হল এক শক্তি। কেউ কেউ এর নাম কুসংস্কারও দিয়ে থাকেন। কিন্তু একথা কেউ অস্বীকার করতে পারবে না যে পৃথিবীতে এমন অনেক কিছু আছে যা বিজ্ঞান দিয়ে বিশ্লেষণ করা যায় না। মানুষ পৃথিবীতে এসেছে অনেক পরে। এই মহা বিশ্বে এত কাণ্ড যা প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে তার হিসেব কি কেউ দিতে পারে ? পৌরাণিক গল্প গাথা থেকে শুরু করে আশ্চর্য সব কাহিনী আমাদের চারপাশে ছড়িয়ে রয়েছে। কেউ সেগুলি বিশ্বাস করি কেউ বা হেসে উরিয়ে দি।

তবে এমন অনেক উদাহরণ আমাদের চোখের সামনে আসে যা ব্যাখ্যা করতে গেলে সব সময় সাফল্য আসে না। ভারতবর্ষের বুকে ঠাকুর দেবতা নিয়ে বহু গল্প প্রচলিত। সেগুলি যে কেবলই গল্প নয় তার উদাহরণ কিন্তু চোখের সামনে উজ্জ্বল।

ভোপালের সাজাপুর জেলার বোলাই গ্রামে রাতলাম ও ভোপাল রেলস্টেশনে মাঝে অবস্থিত একটি মন্দির। এই মন্দিরের কথা মানুষের মুখে মুখে প্রচলিত। এই স্থানের মানুষেরা মন্দিরটি সম্পর্কে খুবই শ্রদ্ধাশীল। মন্দিরটির বয়স ৬০০ বছরেরও বেশি।

এর বিশেষত্ব হল এই যে এখানে স্বয়ং হনুমানজি ও সিদ্ধিদাতা গনেশ একসাথে বিরাজমান এবং এই কারণে মন্দিরটি হয়ে উঠেছে অদ্বিতীয়। এর নাম শ্রী সিদ্ধবীর খেরাপতি হনুমান মন্দির। পবিত্র এই মন্দিরে হনুমানজির বাম হাতে বিরাজ করেন সিদ্ধিদাতা গনেশ।

বর্তমান সমাজে মানুষের মধ্যে পাপক্রিয়া যেমন বাড়ছে, পাপ স্খলন করে পুণ্য অর্জনের চাহিদাও তেমন বাড়ছে। তাই এই পবিত্র পীঠে দর্শনার্থীদের ভিড়ের কমতি নেই। মঙ্গল ও বুধবার মানুষের ঢল নামে এখানে।

এখানে আশা মানুষের বক্তব্যে শোনা যায় দেবতারা নাকি এখান থেকে খালি হাতে কাউকে ফেরত পাঠান না। মনস্কামনা পূর্ণ হবেই যদি এই মন্দিরে গিয়ে দর্শন করতে পারেন। এমন ও শোনা যায় যে দেবতারা ভবিষ্যৎ দর্শন করিয়ে দেন যাতে সচেতন থাকা যায়।

রেল লাইনের পাশেই এই মন্দির। ট্রেন চালকদের মতে এই মন্দিরের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় আপনা থেকেই কমে যায় ট্রেনের গতি। মনে হয় কোনও এক অলৌকিক শক্তি যেন পরিচালনা করছে ট্রেনের গতিকে।

বিজ্ঞানের যুগে অনেকেই মানতে চান না এসব জিনিস। বুজ্রুকি ও অন্ধবিশ্বাস বলে উড়িয়ে দেন। কিন্তু সব কিছু বিজ্ঞান দিয়ে ব্যাখ্যা হয় না। একবার শোনা যায় এক চালক হনুমান জি ও গনেশের শক্তিকে তাচ্ছিল্য করে জোরে ট্রেন চালানোর চেষ্টা করায় ঘটেছিল ভয়ঙ্কর বিপদ। সামনে থেকে আসা আর একটি মালগাড়ির সাথে সংঘর্ষ হয় আর ট্রেন দুটি লাইন থেকে চ্যুত হয় ছিটকে পড়ে আশেপাশে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here