নরেন্দ্র মোদী কিনলেন এই বাইকটি ? তার দাম ও বিশেষত্ব জানলে অবাক হবেন…

0
2005

নরেন্দ্র মোদী ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী। তিনি ভারতের জনসাধারণের অনেক উপকার করেছেন এবং তাদের বিপদে পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। তার জন্ম হয় ১৯৫০ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর। বম্বে প্রেসিডেন্সি (বর্তমান গুজরাট রাজ্যের) মহেসানা জেলার বড়নগর নামক স্থানে ঘাঞ্চী তেলী সম্প্রদায়ের বেশ নিম্নবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহন করেন তিনি। তারা মোট চার ভাইবোন। তিনি তাদের মধ্যে তৃতীয়।

তিনি অনেক কম বয়সে বড়নগর স্টেশনে বাবাকে চা বিক্রি করতে সাহায্য করতেন। তারপর কৈশরে বাস স্ট্যান্ডে ভাইয়ের সাথে চা বিক্রি করতেন। তারা পুরো পরিবার একটা ছোট কামরার একতলা বাড়িতে বাস করতেন।

তিনি আর বাকি সাধারণ ছেলেদের মতোই খুব সাধারণ স্কুলেই পড়াশোনা করেছেন। জীবনে অনেক বাধা বিপত্তি পেরিয়ে তিনি আজ ভারতের প্রধানমন্ত্রী। তিনি ডিজিটাল ভারত গড়ার স্বপ্ন দেখেছেন। তার স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার জন্য কিছুটা হলেও সাহায্য করেছেন একটি ছেলে।

গোটা পৃথিবীতে পেট্রোলিয়ামের পরিমান ক্রমশ কমতে থাকছে। তাই পেট্রোলের দাম বেড়ে আকাশ ছুঁয়েছে। মানুষ তাই এখন পেট্রোলের বিকল্প খুঁজছে। আর ঠিক সেই কারনেই মিরাটের এক যুবক বানিয়ে ফেললেন মোদি বাইক। যা বিনা পেট্রোলেই চলবে।

তার এই আবিষ্কার চমকে দিয়েছে বিশ্বের বড় বড় ইঞ্জিনিয়ারদের। তাদের উড়ে গেছে রাতের ঘুম। সেই ছেলেটির নাম ওয়াকার আহমেদ। ওয়াকার দিল্লীর টেকনোলজি ইন্সটিটিউটের অটোমোবাইলের ছাত্র। তার মা বলেছেন যে তারা গরীব হলেও সে সব সময় দেশের জন্য কিছু করার চেষ্টা করত।

ওয়াকারের এই বাইকের বিশেষত্ব হল- এই বাইকে কোন ইঞ্জিন নেই। তার বদলে রয়েছে জেনারেটর মোটর। এই বাইকে মাত্র এক ঘন্টার বেশি চার্জ দেওয়ার দরকার নেই। আর এক ঘন্টা চার্জ দিলেই চলবে ১০০ কিলোমিটার। এই বাইক মধ্যবিত্তদের জন্য খুব ভালো। এর সর্বোচ্চ গতি ঘন্টায় ৮০ কিলোমিটার।

ছোট থেকেই ওয়াকারের গাড়ি নিয়ে কিছু করার ইচ্ছা ছিল। আর সে তা করেও দেখিয়েছে। এই বাইক তৈরি করতে খরচ হয়েছে ৭২ হাজার টাকা। যার আন্তর্জাতিক বাজার মূল্য হল প্রায় ২০ লক্ষ টাকা। তিনি এই বাইক মোদীকেও দেখিয়েছেন।

তিনি খুব খুশি এই বাইক দেখে। আর এই বাইকটি দেখার পর ১৫ লক্ষ টাকা দিয়ে তিনি কিনেও নেন। আপাতত বাইকটি তার বাসভবনে আছে বলে জানা গেছে। তবে এই খবরের সত্যতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর কোন বিবৃতি দেয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here