মেয়েদের স্তন দেখলে বাড়বে ছেলেদের আয়ু, বলছে গবেষণা…

0
28016

কিভাবে বাড়বে মানুষের আয়ু? কিভাবে তারা সুখে দিন কাটাবে? তাহলে আসুন জেনে নিন বিজ্ঞান কি বলছে। বিজ্ঞান শুধুমাত্র পুরুষের আয়ু বাড়ানোর জন্য উপায় বার করেছে। কারন মহিলাদের আয়ু পুরুষের তুলনায় বেশি। মেয়েরা যতই উন্নত হোক তাও আমাদের সমাজে পুরুষের প্রভাব বেশি। তাই ঘরের থেকে বাইরেই বেশি সময় কাটে পুরুষের। তাই তাদের বিশ্রাম নেওয়া বেশি দরকার।

পুরুষের গড় আয়ু ৬৬.৪ বছর আর মহিলাদের ৬৯.৬ বছর। মহিলাদের তুলনায় পুরুষেরা কম বাঁচে। মহিলাদের বেশিদিন বেঁচে থাকার পেছনে রয়েছে জিনতত্ত্ব। বিজ্ঞান বলছে মেয়েদের দুটি X ক্রোমোজোম তাদের অনাক্রম্যতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। আর পুরুষের শরীরে একটি মাত্র X ক্রোমোজোম থাকায় সেটি সম্ভব হয়না।

কিন্তু কয়েকটি পদ্ধতির কথা বিজ্ঞানীরা বলেছেন, যা অবলম্বন করলে পুরুষের আয়ু বাড়বে। পদ্ধতি গুলি হল – একজন নারীকে আপনার কাছে বেঁধে রাখা। কিন্তু কথায় বলে নারীকে বেঁধে রাখা সম্ভব নয়। কিন্তু একটি পদ্ধতিতে নারীকে নিজের কাছে বেঁধে রাখা সম্ভব।

আর আপনি তা করতে পারেন নিজের যৌ-ণ ক্ষমতা দিয়ে। সুখি দাম্পত্যের একটা বড় উপাদান হল সে-ক্স। তবে তা নির্দিষ্ট বয়সেই সিমাবদ্ধ। আমেরিকার ১২৭০০০ জনের উপর একটি গবেষনা করে দেখা গেছে যে যারা ২৫ বছরের পড়ে বিয়ে করে তারা অন্যদের তুলনায় বেশি দিন বাঁচে।

গবেষণা বলছে বিবাহিত পুরুষ অবিবাহিতদের তুলনায় বেশি বাঁচে। কারন দিনে মাত্র দশ মিনিট স্ত্রীর স্তনের দিকে তাকিয়ে থাকলে পুরুষের আয়ু পাঁচ বছর পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব।

শুনতে অদ্ভুত লাগলেও একথা একদম সত্যি। মহিলাদের স্তন দেখলেই পুরুষের মধ্যে যৌ-ণ ইচ্ছা জাগে। আর যৌ-ণ অনুভূতি জাগলে মন খুশি থাকে, আর মন ভালো থাকলে শরীরও সুস্থ থাকে।

এছাড়া এটি মনের শান্তি উচ্চ রক্তচাপ কমাতেও সাহায্য করে। গবেষণায় কিছু পুরুষের উপর ওষুধ আর কিছু লোকের উপর এই পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়েছিলো।

সেখানে প্রমান হয়েছে এই পদ্ধতি কার্যকরী। সে-ক্স শব্দটা শুনলেই পুরুষের মনে আনন্দ হয়। সে-ক্স পুরুষের বাঁচার ক্ষমতা ৫০% পর্যন্ত বাড়িয়ে তোলে। সে-ক্স হল একপ্রকার ব্যায়াম। যার ফলে শরীর সুস্থ থাকে আর তার সাথে স্ট্রেস কমায়।

যে কোন প্রকার অসুস্থতা থেকে রক্ষা করে এই সে-ক্স। সে-ক্সের সময় ক্ষরিত হয় sero-tonin হরমোন, যা মানসিক খুশি ও শান্তিদায়ী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here