“সহবাসে অক্ষম”… স্ত্রীর এই অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করতে অন্য মহিলার সঙ্গে সহবাসের ভিডিও পাঠালেন স্বামী…

0
11566

খবরের কাগজে বা নিউজ চ্যানেলে আমরা প্রতিদিন কিছু না কিছু নতুন ঘটনার সম্মুখীন হই। প্রায়ই কিছু খারাপ ঘটনার খবর আমরা জানতে পারি। তবে এরকম ঘটনা খুব একটা শোনা যায় না। আজ আপনাদের এমন একটি ঘটনা জানাবো যা জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। আসল ঘটনাটি হল এক মহিলা এবং তার স্বামীকে নিয়ে। স্ত্রী তার স্বামীর উপর নপুংসকতার অভিযোগ নিয়ে আসে।

এই অভিযোগে সে তার স্বামীর থেকে ডিভোর্সের আবেদন করে। এমনকি তাকে ঠকানোর জন্য স্বামীকে জেল খাটায়। তার পুরুষত্বে আঙ্গুল ওঠার পর তার যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য স্বামী একদিন অন্য মহিলার সঙ্গে সহবাসের ভিডিও করে পাঠিয়ে দেয় তার শ্বশুরের কাছে।

আসুন জেনে নিন তাহলে আসল ঘটনা কি ঘটেছিল… রিপোর্ট অনুযায়ী এই ঘটনাটি ঘটেছে হায়দ্রাবাদের লাল বাহাদুর এলাকায়। এই এলাকায় বসবাসকারী বিবা বসুর সাথে মুতামিজ নগরের কাছে বাস করা অনুষার বিয়ে হয়। দু বছর আগে তাদের বিয়ে হয়েছিল।

বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তাদের মধ্যে অশান্তি শুরু হয়ে যায়। তাদের নানা কারনে প্রায় প্রতিদিন ঝগড়া হত। একদিন তাদের তুমুল অশান্তি হওয়ায় মেয়েটি বাপের বাড়ি চলে যায়। আর কিছুতেই শ্বশুরবাড়ি ফিরতে চায় না। সে কেনো ফিরছেনা তার উত্তর কারোর কাছে ছিলনা।

অনুষা ও বিবা দুজনের কেউই তাদের সমস্যা মেটাতে রাজি ছিলনা। তারপর অনুষার বাড়ি থেকে কোর্টে ডিভোর্সের জন্য আবেদন জানানো হয়। তখনই অনুষা কোর্টে জানান যে তার স্বামী নপুংসক, তাই সে তার স্বামীর সঙ্গে আর সংসার করতে চায় না।

অনুষার অভিযোগ ছিল তার স্বামী সহবাসে অক্ষম। এই অভিযোগের কথা যখন বিবা জানতে পারে তখন প্রচন্ড রেগে যায়। সে ঐ অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করার জন্য অন্য এক মহিলার সাথে সহবাস করে তার একটি ভিডিও বানায়।

শারীরিক সম্পর্কের সময় সেই স্থানে দুই জন ছাড়া আরো একজন ছিল। সেই ব্যাক্তি যে পুরো ঘটনা ক্যামেরা বন্দি করেছিল। তারপর সেই ভিডিও ক্লিপ পাঠিয়ে দেয় তার স্ত্রী এবং শ্বশুরের কাছে।

এরকম কাজ করার পর অনুষার পরিবার আবার পুলিশের কাছে যায়। তারপর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের পর বিবা স্বীকার করেন যে, তার স্ত্রীর অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করার জন্য সে এরকম কাজ করেছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here