এই ৫টি লক্ষণ দেখে বুঝে যাবেন যে আপনার জীবনে খারাপ সময় আসতে চলেছে…

0
11578

হঠাৎ করে আমাদের জীবনে এমন অনেক ঘটনা ঘটে যা ওলট পালট করে দেয় আমাদের জীবন। ব্যর্থ করে দেয় সমস্ত পরিকল্পনা। বাধ্য হয়ে মেনে নিতে হয় অপ্রত্যাশিত, অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনা। খারাপ সময় হানা দেয় আমাদের জীবনে। দীর্ঘ দিন ধরে তিলে তিলে গড়ে তোলা গোছানো জীবন এক মুহুর্তেই হয়ে ওঠে অচেনা অজানা।

আমরা মনে করি খারাপ সময় হঠাৎ আসে, কিন্তু আদৌ তা নয়। খারাপ সময় আসার আগে অনেকগুলো ইঙ্গিত দেয় যা আমরা বুঝতে পারিনা। বাস্তুশাস্ত্রের মতে এমন কিছু লক্ষণ আছে যা দেখে বোঝা যায় যে জীবনের দরজায় খারাপ সময় এসে অপেক্ষা করছে। আসুন দেখে নেওয়া যাক সেই লক্ষণ গুলিঃ

 

১। খারাপ স্বপ্ন দেখাঃ স্বপ্ন দেখা একটি সাধারন ব্যাপার। কম বেশি স্বপ্ন প্রায় প্রতিদিন সবাই দেখে। কারোর মনে থাকে আবার কেউ ভুলে যায়। এক একটি স্বপ্ন এক এক রকম হয়। কোনটা খুব ভালো আবার কোনটা খুব খারাপ। ভালো স্বপ্ন যেমন আমাদের আনন্দ দেয় তেমনই খারাপ স্বপ্ন আমাদের দাপিয়ে বেড়ায়। তবে যদি নিয়মিত খারাপ স্বপ্ন আসে তাহলে বুঝে নিতে হবে জীবনে খারাপ সময় আসতে চলেছে।

২। স্বপ্নে কাউকে কাঁদতে দেখাঃ আপনি আপনার স্বপ্নে যদি অচেনা অজানা কাউকে কাঁদতে দেখেন তাহলে বুঝে নিন আপনার জীবনে খারাপ কিছু ঘটতে চলেছে। কারন আপনি যাকে স্বপ্নে কাঁদতে দেখছেন সেটি আসলে একটি প্রেতাত্মা। যে আপনাকে ইঙ্গিত দিচ্ছে খারাপ সময়ের।

৩। বাড়ির আশে পাশে কালো বিড়ালের দেখা পাওয়াঃ আপনি যদি ইদানিং আপনার বাড়ির আশে পাশে কোনো কালো বিড়ালকে ঘোরা ফেরা করতে দেখেন, যাকে আগে কখনো দেখেননি, তাহলে জানবেন আপনার জীবনে খুব শীঘ্রই খারাপ সময় আসতে চলেছে। এমন কিছু দেখলে সবার আগে সাবধান হোন।

৪। বাজে কোনো জিনিস খুঁজে পাওয়াঃ বাড়িঘর পরিষ্কার করার সময় যদি কোনো বাজে জিনিস খুঁজে পান তাহলে জানবেন আপনার জীবনে খারাপ সময় আসন্ন। খারাপ জিনিস গুলো বলতে বোঝায় যেমন যেখানে সেখানে পড়ে থাকা মাছের কাঁটা, টিকটিকির লেজ ইত্যাদি। এসব জিনিস যদি ঘরে দেখেন তাহলে তক্ষনি সরিয়ে ফেলুন।

৫। টিকটিকিঃ যদি হটাত ঘরে কোথাও দেখেন দুটো টিকটিকি মারপিট করছে এবং আপনি দেখার পরেই উধাও হয়ে গেলো, তাহলে জানবেন আপনার সঙ্গে খারাপ কিছু ঘটতে চলেছে।

আপাতদৃষ্টিতে ঘটনাগুলো সাধারণ মনে হলেও এগুলি কোন সাধারণ ঘটনা নয়। এক্ষেত্রে এই ঘটনাগুলি বুঝিয়ে দেয় যে আপনার জীবনে খারাপ সময় আসতে চলেছে। তাই সাবধান থাকুন এবং অপরকে সাবধান করুন। প্রতিবেদনটি সকলের সাথে শেয়ার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here