ডিম খেয়ে ১৪ দিনে কমিয়ে ফেলুন ১০ কেজি ওজন, কিভাবে তা জেনে নিন নিচে ক্লিক করে…

0
8388

বয়স বাড়ার সাথে সাথে রূপের পরিবর্তন হওয়া স্বাভাবিক ব্যাপার। তার সঙ্গে আসে নানা রকমের রোগ। বর্তমান দিনে বদলেছে খাদ্যাভ্যাস। তাই মানুষের শারীরিক অসুস্থতার পরিমানও বেড়েই চলেছে। খাওয়া দাওয়ার অনিয়মের জন্য আর একটি প্রধান সমস্যা দেখা দিচ্ছে, সেটি হল শারীরিক ওজন বৃদ্ধি পাওয়া। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আমরা অনেকে অনেক কিছুই করে থাকি।

জিম করা, ডায়েট করা তো আছেই। তাছাড়াও মর্নিং ওয়াক, অনেকে না খেয়েও সারাদিন কাটিয়ে দেয়। তারা মনে করে না খেয়ে থাকলে বোধহয় সহজে রোগা হওয়া যায়। কিন্তু এটা তাদের সম্পুর্ন ভুল ধারনা। না খেয়ে কখনোই রোগা হওয়া যায়না, বরং শরীর আরো অসুস্থ হয়ে পড়ে। মোটা লোকেদের পক্ষে না খেয়ে থাকা খুব কস্টসাধ্য ব্যাপার।

তবে আর না খেয়ে থাকতে হবেনা। এবার খেয়েই রোগা হতে পারবেন। ডিম প্রায় সকলের প্রিয়। সেই ডিম খেয়েই কমিয়ে ফেলুন নিজের ওজন। ডিমকে সুপার ফুড বলা হয়। ডিমে থাকে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ও মিনারেলস।

ছোট শিশু থেকে শুরু করে বয়স্ক পর্যন্ত সকলের উচিৎ প্রতিদিনের ডায়েটে ডিম রাখা। সিদ্ধ ডিম সবথেকে বেশি উপকারী। আসুন তাহলে দেখে নিন ওয়েট কমাতে এবার থেকে কখন ডিম খাবেন ঃ

রবিবার – ব্রেকফাস্টে খান ফল ও দুটো সেদ্ধ ডিম। লাঞ্চেও ফল, আর ডিনারে স্যালাড ও গ্রিলড চিকেন।

সোমবারে খান ব্রেকফাস্টে একটা ফল, ২ টো ডিম সেদ্ধ, লাঞ্চে ফল, পাউরুটি, ডিনারে স্যালাড, গ্রিলড চিকেন।

মঙ্গলবারের ব্রেকফাস্ট একটা ফল, ২ টো ডিম সেদ্ধ, লাঞ্চে গ্রিন স্যালাড ও গ্রিলড চিকেন, ডিনারে দুটো সেদ্ধ ডিম, স্যালাড ও কমলালেবু।

বুধবারে ব্রেকফাস্টে রাখতে পারেন একটা ফল, ২ টো ডিম সেদ্ধ, লাঞ্চে চিজ, টমাটো, পাউরুটি, ডিনারে স্যালাড ও গ্রিলড চিকেন।

বৃহস্পতিবার ব্রেকফাস্টে ফল ও দুটো সেদ্ধ ডিম। লাঞ্চে ফল। ডিনারে রুটি।

শুক্রবারে খান ব্রেকফাস্টে ফল ও দুটো সেদ্ধ ডিম। লাঞ্চে ফল। ডিনারে স্যালাড ও গ্রিলড চিকেন।

শনিবার ব্রেকফাস্টে রাখতে পারেন ফল। লাঞ্চে এক কাপ ভাত, দুটো ডিম সেদ্ধ, একটু মাখন। ডিনারে স্যালাড ও গ্রিলড চিকেন।

ডিম আমাদের প্রতিদিন খাওয়া দরকার। একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির দিনে দুটো করে ডিম খাওয়া দরকার। যারা ভাবে ডিম খেলে মোটা হয়ে যায় তাদের ধারনা ভুল। ডিম অনেক্ষুন পেট ভর্তি রাখে। ঘন ঘন খিদে পায়না। আর ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here