শঙ্খ কেন তিনবার বাজানো হয় ? কারণ জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন…

0
4006

প্রত্যেক বাঙালী বাড়িতে নিয়মিত সন্ধ্যে বেলা শঙ্খ বাজানো হয় এই কথা আমরা সকলেই জানি। দিনশেষে সূর্য অস্ত গেলে গৃহস্থ বাড়িতে ভগবানের আরাধনা করা হয় আর সঙ্গে শঙ্খ বাজিয়ে তাদের আমন্ত্রণ করা হয়। এই রীতি হিন্দুদের মধ্যে প্রাচীন কাল থেকেই চলে আসছে, এটা কোন নতুন কথা নয়। এটি প্রধানত পূজা অর্চনার কাজেই লাগে।

কিন্তু একটা কথা অনেকেরই অজানা যে শঙ্খ কখনোই সকালে বাজাতে নেই। এর কারণ হল মহাভারতে কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধের সময় যখন সকালে যুদ্ধ শুরু হতো তখনই শঙ্খ বাজানো হতো। এর অর্থ হল সকালে শঙ্খের ধ্বনি যুদ্ধের সূচনা করে, যুদ্ধের খবর বয়ে নিয়ে আশে।

আর সন্ধ্যায় যখন যুদ্ধের শেষ হতো তখন আর একবার শঙ্খ বাজানো হতো। সন্ধ্যার শঙ্খধ্বনি যুদ্ধ সমাপ্তির ঘোষণা করে। তাই প্রাচীন কাল থেকে সন্ধ্যা বেলা শঙ্খ বাজানোর নিয়ম। সন্ধ্যে বেলা শঙ্খ বাজানোর অর্থ হল সারাদিনের যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে শান্তি ফিরে এলো।

আর একটি নিয়ম হল শঙ্খ তিনবার বাজাতে হয়। শঙ্খ বাজানো হয় জীবনে সুখ শান্তি ফেরানোর জন্য। বাড়ির আশেপাশে অশুভ শক্তি যাতে প্রবেশ না করতে পারে। আর বাড়িতে শুভ শক্তির প্রভাব বৃদ্ধির জন্য। জীবনে কোন খারাপ ঘটোনা ঘটার আশঙ্কা কমে যায়।

পরিবারের সকলের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। তদের জীবনে কোন খারাপ সময় আসেনা। তার সঙ্গে ভাগ্য ফিরে যায় জীবনের পথ হতে থাকে মসৃণ। এই সব কথা প্রায় আমাদের সবারই জানা। যা আমাদের অজানা সেটি হল শঙ্খ কেন তিনবার বাজাতে হয়? কেন তার বেশি বাজাতে নেই?

আমরা ছোট থেকেই দেখে আসছি বাড়ির গুরুজনেরা পুজো করার সময় ঠিক তিনবার শঙ্খ বাজান। কিন্তু কেন? কেন শঙ্খ তিনবার বাজনো উচিৎ? কারণ তিনবার শঙ্খ বাজালে দেবদেবীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। শাস্ত্রে এমনটাই লেখা আছে। আর তিনবারের বেশি বাজালে দেবদেবীরা প্রবল অসন্তুস্ট হন।

বিশেষ করে মহাদেব, বিষ্ণু, ব্রহ্মার মতো দেবেরা রুষ্ট হন। এর ফলে আশির্বাদ লাভের জায়গায় তাদের কোপের মুখে পড়তে হয়। নেমে আসতে পারে আপনার ও আপনার পরিবারের ওপর বিপদ। এই কারণে তিন বার শঙ্খ বাজানোর পরামর্শ দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here