জানেন কি ঘরে কোন সাতটি জিনিস রাখলে আপনার সংসারের সব অভাব কেটে যাবে ?

0
12860

মানুষের বিশ্বাসের উপরেই সব নির্ভর করে। এই পৃথিবীতে এমন অনেক কিছু আছে যার কোন ব্যাখ্যা হয়না। শুধুমাত্র বিশ্বাসের জোড়েই মেনে চলেছি সেই সব ঘটনা। বাড়ির বাস্তুতন্ত্রও এমন এক জিনিস, যা শুধুমাত্র বিশ্বাসের উপর নির্ভর করে। আমরা ঘর সাজানোর জন্য ব্যবহার করি অনেক রকমের জিনিস। কিছু জিনিস ঘরে রাখার যেমন সুফল আছে তেমনই কিছু জিনিসের কুফলও আছে।

হিন্দু বাস্তুশাস্ত্র বলছে এমন ৭টি জিনিস আছে যা ঘরে রাখলে সংসারে সুখ আসবে, কোন অশান্তি থাকবে না। আসুন তাহলে জেনে নিন সেই ৭টি জিনিস কি কি…

১। রূপোর লক্ষ্মী গনেশ মূর্তি ঃ- রূপোর মূর্তি একটু ব্যয়বহুল হলেও রূপোর লক্ষ্মী গনেশের মূর্তি ঠাকুরের সিংহাসনে রাখলে সংসারে পূর্নতা আসে। সব অভাব দূর হয়, পরিবারে কোন অশান্তি থাকেনা।

২। রূপোর হাতি ঃ- বাড়িতে সিন্দুক বা লকারের মধ্যে রূপোর হাতি রাখুন। এটি কিনতে কিছু খরচ হলেও আপনার বাড়িতে এটি সমৃদ্ধি আনবে। তাছাড়াও এটি আপনার ভাগ্য বদলাতে সাহায্য করবে।

৩। পূজোর জন্য তামার বাসন ঃ- পুজোর সময় স্টিলের বাসন ব্যবহার না করে তামার বাসন ব্যবহার করাই ভালো। এতে পূজো সফল হবে। আর বাড়িতে যদি তামার বাসন থাকে তাহলে তা তুলে না রেখে রোজ ব্যবহার করুন।

৪। মধু ঃ- বাস্তু শাস্ত্র অনুযায়ী মধু খুব শুভ জিনিস। তাই কেউ বাড়ি থেকে দূরে কোথাও শুভ কাজে গেলে তাকে মধু খাওয়ানো হয়। আমাদের শরীরের জন্যেও এটি খুব উপকারি। বিভিন্ন রোগের প্রতিকারে মধু ব্যবহার করা হয়। বাড়িতে ঘরের কোন একটা জায়গায় মাটির পাত্রে মধু রাখুন, এর ফলে সংসারে সব অভাব দূর হয়ে যাবে।

৫। শ্রীযন্ত্র ঃ- আপনার সংসারের উপর যদি দেবী লক্ষ্মীর কৃপা থাকে তাহলে কোন অভাব থাকবেনা। এই যন্ত্রটি লক্ষ্মীকে তুষ্ট রাখে। তাই রোজ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন ভাবে তার পুজো করুন।

৬। ময়ূরের পালক ঃ- ময়ূরের পালককে আমরা সব সময় শুভ হিসাবেই দেখি। আর এগুলি দেখতেও ভীষণ সুন্দর হয়। তাই এগুলি হাতে পেলে আমরা যত্ন করে রাখি। ময়ূরের পালক ঘরে রাখলে বাড়িতে শুভ শক্তি বজায় থাকে। সংসারের অভাব দূর হয়। এটি শনির দোষ কাটায়, কর্মক্ষেত্রে উন্নতি করে, রোগ ব্যাধি দূরে রাখে।

৭। গোটা হলুদ ঃ- গোটা হলুদ মখা বা খাওয়ার যেমন উপকারিতা আছে তেমন বাড়ির সিন্দুকে রাখারও উপকারিতা আছে। টাকার সঙ্গে হলুদ রাখলে অর্থের বৃদ্ধি হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here