বোমা ভেবে সারারাত বেগুন পাহারা দিল বাংলাদেশী পুলিশ…

0
5735

বাংলাদেশের চট্টোগ্রাম এলাকায় সন্দেহজনক এক বস্তুকে দেখে চাঞ্চল্য ছড়ায় পুরো এলাকায়। তারপর সেই এলাকার মানুষ খবর দেয় পুলিশকে। খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে সেখানে ছুটে আসে পুলিশ। ততক্ষণে এলাকার আতঙ্ক আরোও ছড়িয়ে পড়ে। প্রায় সকলেই এই জিনিস দেখে ভয় পেয়ে যায়। জিনিসটি ছিল কালো টেপ দিয়ে মোড়া। পুলিশ সেটিকে দেখে বোমা বলেই নিশ্চিত করেন।

তাই বোমা নিশক্রিয় করার জন্য যা যা করার দরকার তাই করে পুলিশ। তারা বোমা নিশক্রিয় করার লোককে খবর দেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই সকলেই সেখানে এসে পৌঁছান। তখন সময় ছিল রাত, তাই তারা রাতে কোন ঝুঁকি নিতে চাননি।

তাই সেই এলাকা ফাঁকা করিয়ে দিয়ে তারা সারারাত সেই সন্দেহজনক জিনিসটিকে পাহারা দেন। সারারাত পাহারা দেওয়ার পর তারা সকালে ঐ বস্তুটির পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু করেন। ভোর হতেই তারা বস্তুটিকে পরীক্ষা করতে নামেন। আর তারপরেই চোখ কপালে ওঠে তাদের।

তারা দেখেন যে কালো টেপে মোড়ানো জিনিসটি আসলে বেগুন। চট্টোগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যালয়ের সামনে কিছু ছাত্র দেখে যে বোমের মত দেখতে কিছু জিনিস পড়ে আছে। আর তারপরেই পুরো বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুরো এলাকা ঘিরে ফেলে পুলিশ।

সেদিন সারারাত পুলিশ সেই বোমের মত দেখতে বেগুন পাহারে দেন। তারপরের দিন সকালে বোমস্কটের লোকজন যন্ত্রপাতি নিয়ে যায় সেই বোমটি নিষ্ক্রিয় করতে। তারা বোম ফাঁকা জায়গায় রেখে রিমোট দিয়ে সেটা ফাটানোর চেষ্টাও করেন, কিন্তু তাতে কোন লাভ হয়নি।

তারপরই পুলিশের সন্দেহ হয় যে সেটা আদৌ বোম কিনা। সন্দেহ নিরশন করার জন্য বোম খুলে দেখা হলে দেখা যায় সেটি আসলে একটি বেগুন। পুলিশের কর্মকর্তারা বলেন এটা তাদের বিভ্রান্ত করার জন্য করা হয়েছে। কারন সেটি কালো টেপ দিয়ে মুড়িয়ে দুদিক থেকে লাল ও কালো ইলেক্ট্রিকের তার বের করা ছিল।

যে কেউ সেটা দেখে বোম মনে করবে। বিষয়টি খুব গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন পুলিশ। যে বা যারা এই কাজ করেছে তাদের খুব শীঘ্রই খুজে বার করবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পুলিশ। সি.এম.পি এর বোমাস্কটের একজন সদস্য বলেন, একটি বেগুনের দুদিকে দুটি তার লাগিয়ে বোমার মত করেই রাখা ছিল।

এটি দেখতে অবিকল হ্যান্ড গ্রেনেডের মতো ছিল। এই কাজ সাধারণ কারোর হতে পারেনা। যার বোমা সম্পর্কে জ্ঞান আছে সেই এমন কাজ করতে পারে। তাকে খুঁজে পাওয়া গেলে করা ব্যবস্থা নেবে পুলিশ, একহা জানানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here