মাধ্যাকর্ষণের সূত্র মেনে চলেনা এই অসাধারণ ভাস্কর্যগুলি…

0
3517

আজ আপনাদের সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা নানা রকম আশ্চর্য করা নিদর্শন দেখাবো, যা সব পুরনো ভাস্কর্য থেকে অনুপ্রানিত হয়ে বানানো হয়েছে। এগুলি এমন ভাবেই তৈরি করা হয়েছে যে এই ভাস্কর্যগুলি দেখে মনে হবে যে এগুলির উপর কোন মাধ্যাকর্ষন শক্তি কাজ করেনা। এমন ভাবেই তা বছরের পর বছর একই ভাবে রয়েছে।

১। “কফি কাপ” আমেরিকা ঃ- এই ভাস্কর্যটি রয়েছে আমেরিকাতে। প্রায় ভাসমান অবস্থাতেই রয়েছে এই বিশাল আকারের কফি কাপটি। শুধুমাত্র কফির উপর ভর করে।

২। “দ্য পাপিটিয়ার” আরব আমিরশাহি ঃ- আরব আমিরশাহিতে ব্রোঞ্জ দিয়ে নির্মিত হয়েছে এই অসাধারণ ভাস্কর্যটি। একটি সরু তারের উপর রয়েছে এই বিশাল ভাস্কর্য।

৩। “মনুমেন্ট টু দ্য উইন্ড” চিলি ঃ- চিলিতে অবস্থিত এই অসাধারণ ভাস্কর্য। প্রায় হাওয়ায় ভাসমান অবস্থায় রয়েছে একটি পুরুষ ও একটি নারী মূর্তি, যা সত্যিই দেখার মত।

৪। “আ বুলেট ফ্রম আ শুটিং স্টার” ইংল্যান্ড ঃ- আমরা অনেকেই বিদ্যুৎ পরিবহনের পোস্ট দেখেছি। কিন্তু এটা ভিন্ন, এটাকে উলটো ভাবে বানানো হয়েছে। বহু বছর ধরে এই ভাবেই বাঁকা হয়ে দাঁড়িয়ে আছে এটি।

৫। “প্ল্যানেট” সিঙ্গাপুর ঃ- সিঙ্গাপুরের একটি পার্কে এটি আশ্চর্যজনক মূর্তিটি দেখতে পাওয়া যায়। শুধুমাত্র হাতের একটু স্পর্শ রয়েছে মাটিতে, বাকি শরীর ভেসে রয়েছে এই বিশাল শিশুটির।

৬। “স্কাইহুকস” ইংল্যান্ড ঃ- এটা দেখে মনে হচ্ছে যে আকাশ থেকে একটি বিশাল হুক নেমে এসেছে আর সেটাই ধরে রেখেছে। সম্পূর্ণ আশ্চর্যজনক।

৭। “জিমন্যাস্ট” আরব আমিরশাহি ঃ– জিনন্যাস্টের মূল মন্ত্র হল ব্যালেন্স। সেটাই এখানে দেখান হয়েছে। একটি সরু তারের উপরেই রয়েছে একজন জিম্ন্যাস্টের ভাস্কর্য।

৮। “হরাইজনস” নিউজিল্যান্ড ঃ- এটি দেখে যে কোন কারোর মনে হতে পারে কোন বাড়ির ছাউনি এখানে উড়ে এসে পড়েছে। কিন্তু এটার সামনে গেলে আপনি অবশ্যই চমকে যাবেন।

৯। “ওয়াকওয়ে টু দ্য মেনল্যান্ড” নিউজিল্যান্ড ঃ- নিউজিল্যান্ডের এই সিঁড়ি দেখে মনে হবে যেন এটি স্বর্গের সিঁড়ি। এত বড় সিঁড়ি কিভাবে এরকম শুন্যে ভেসে থাকতে পারে সেটা তো এর নির্মাতারাই জানেন।

১০। “ফ্লোটিং স্টোন” কায়রো ঃ- এটা সত্যিই আশ্চর্য্যজনক একটি ভাস্কর্য। পাথর দুটো কিভাবে এরকম ভাসমান অবস্থায় থাকতে পারে ? সত্যিই এটা প্রশংসার যোগ্য।

আমাদের এই বিশ্বে এইরকম অনেক এমন ভাস্কর্য রয়েছে যার কোন ব্যাখ্যা করা যায় না। আপনি তা নিজের চোখে দেখেও বুঝতে পারবেন না। কিছুতে রয়েছে বিজ্ঞানের চমৎকার তো কিছু পুরাতন নিদর্শন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here