এই ১২ টি জিনিস পুরোপুরিভাবে আপনার দাঁতের ময়লা পরিষ্কার করতে পারে, একবার ব্যবহার করেই দেখুন…

0
4859

‘হাসি আপনার ব্যক্তিত্বকে আরো উজ্জ্বল করে তোলে’, এই কথাটি প্রায় সকলেই শুনেছেন। কিন্তু দাঁতের হলুদভাভ, কালোভাব, পচন বা ভালো করে পরিষ্কার না থাকার কারণে আমরা সকলের সামনে হাসতে লজ্জা পাই। সাধারণত খাওয়ার অভ্যাস ও অবহেলার কারণে টারটার নামক ব্যাকটেরিয়া আমাদের দাঁতে বা মাড়িতে জমা হয়। এই ব্যাকটেরিয়া পুরোপুরিভাবে দাঁতকে নষ্ট করে দিতে সক্ষম। আজ আমরা আপনাদের এমনই কিছু উপায় বলবো যা এই টারটার অপসারণ করে আপনার দাঁতকে উজ্জ্বল করে তুলবে।

নীমঃ নীমের মধ্যে থাকা অ্যন্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান ব্যাকটেরিয়াকে সহজেই অপসারণ করতে পারে। নীম পাতার পেস্ট বা কাণ্ড দিয়ে প্রতিদিন ব্রাশ করলে দাঁতের ব্যাথা ও ক্যাবেটি থেকে পরিত্রাণ পাবেন।

লেবু ও পুদিনার তেলঃ লেবু, পুদিনার তেল ও সামান্য জল দিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। প্রতিদিন এক ফোঁটা করে এটি মুখে দিন, যা আপনাকে তাজা অনুভব করাবার সাথে সাথে দাঁতের স্বাস্থ্যও বজায় রাখবে।

ফ্লোরাইট যুক্ত টুথপেস্টঃ টুথপেস্ট কেনার আগে দেখে নিন যে সেটিতে ফ্লোরাইড আছে কি না। এই ফ্লোরাইড আমাদের দাঁতের বাইরের স্তরটি শক্ত করে যা দাঁতের ক্ষয় এবং ক্যাবেটির বিরুদ্ধে ভালো।

নারকেল তেলঃ নারকেল তেল এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া নাশক দ্রব্য। নারিকেল তেল দিয়ে রান্না করে খেলে তা ব্যপকভাবে দাঁতের পচনক্রিয়া কমায় এবং ক্রমবর্ধমান ক্যাবেটি বাড়ার হাত থেকে রক্ষা করে।

রোজমেরি আর পুদিনাঃ এক কাপ পুদিনা ও রোজমেরি জলে ফুটিয়ে নিন। সেটি ভালোভাবে ছেঁকে নিয়ে জলটি ঠাণ্ডা করুন। সেই জল দিয়ে কুলকুচি করুন।

ফ্লসিংঃ আমাদের টুথব্রাশ যেসব কাজ করতে পারে না তা সহজেই ফ্লসিং এর মাধ্যমে করা সম্ভব। এটি দাঁত পরিষ্কার করার চমৎকার পদ্ধতি। তাই ফ্লোসিং স্পষ্টভাবে সকলের জন্য ভালো।

লেবুঃ লেবুর মধ্যে থাকা অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল প্রোপার্টি জমে থাকা নোংরা এবং টারটারকে সরিয়ে দেয়। সপ্তাহে একবার লেবুর রস দিয়ে ব্রাশ করতে ভুলবেন না। এটি দাঁতের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো।

ফল-সবজিঃ জাঙ্ক ফুড বা বেশী তেল মশলা যুক্ত খাবার আমাদের দাঁতে ক্যাবেটি বৃদ্ধি করে। এটি থেকে বাঁচার জন্য ফল ও সবজি জাতিয় খাবার বেশী করে খাওয়া উচিৎ।

এলোভেরা জেলঃ লেবু, এলোভেরা জেল, ব্যাকিং সোডা গ্লিসারিন মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। সপ্তাহে দুদিন এটি দিয়ে ব্রাশ করুন। এর ফলে দাঁতের ক্যাবেটি হ্রাস হবে ও দাঁত উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

কমলা লেবুর খোসাঃ কমলা লেবুতে এন্টি অক্সিডেন্টের গুন থাকে। তাই মুখের ভিতরে কিছুক্ষন কমলা লেবুর খোসা রাখুন ও পরে জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

বেকিং সোডাঃ বেকিং দিয়ে আসতে আসতে ছোট ব্রাশ দিয়ে ব্রাশ করুন। ব্রাশ করার পর গরম জল দিয়ে অনেকবার কুলকুচি করুন। এটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করা আবশ্যক।

তিলের ব্যবহারঃ তিল চেবানো খুব ভালো জিনিস। কিন্তু শুধুমাত্র চেবাবেন, ভুলেও তা খেয়ে ফেলবেন না। চেবানোর পরে থুতু ফেলে দিন। এই তিল দাঁত থেকে টারটার দূর করতে সক্ষম।

এই সব জিনিস সহজে পাওয়া যায়। সেই কথাটা তো শুনেছেন যে ‘জান হে তো জাহান হে’। আপনার যদি এই নিবন্ধটি পছন্দ হয় তবে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here